ঢাকা , শনিবার, ২০২২ জানুয়ারী ২২, ৮ মাঘ ১৪২৮

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

আইনজীবীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক | টুয়েন্টিফোর টিভি
প্রকাশিত : সোমবার, ২০২২ জানুয়ারী ১০, ০৪:২৯ অপরাহ্ন

মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগ তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে মামলা করা হয়েছে।  

সোমবার (১০ জানুয়ারি) সকালে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এসকেএম তোফায়েল হাসান মামলাটি গ্রহণ করেছেন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৩, ২৫, ২৯ ও ৩১ ধারায় মামলাটির আবেদন করেন সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুসেইন কবির।  

মামলার আসামি মো.কামাল উদ্দিন সাতকানিয়ার গারাংগিয়া গ্রামের সুপার পাড়ার ফজল করিমের ছেলে। তিনি চট্টগ্রাম জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) ও দক্ষিণ জেলা যুবলীগের আইন বিষয়ক সহ সম্পাদক।

এর আগে গত ৬ জানুয়ারি বেলা দুইটায় নিজের ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন লিখেছেন, ‘আসন্ন ১৭ নম্বর সোনাকানিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমাকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাইয়ে দিবে বলে সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুসেইন কবির চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপির নাম দিয়ে আমার কাছ থেকে ১৫ লাখ টাকার চেক নিয়েছেন। কিন্তু দুখের বিষয় হচ্ছে, আমাকে মনোনয়ন দেওয়া তো দূরে থাক, কেন্দ্রে আমার নামটি পর্যন্ত পাঠায়নি’।  

সেই চেক ও টাকা ফেরত চেয়ে আইনজীবী কামাল উদ্দিন লিখেছেন, ‘এখন আমি আমার চেক ও টাকা ফেরত চাই। অন্যথায় বিষয়টি নিয়ে আমি তৃণমূলের আশা ভরসার শেষ আশ্রয়স্থল জননেত্রী শেখ হাসিনার দ্বারস্থ হবো এবং ফৌজদারি মামলা করতে বাধ্য হবো’।

হুসেইন কবিরের মামলায় অভিযোগ আনা হয়, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোছলেম উদ্দিন আহমদকে নিয়ে একটি মিথ্যা, ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, দুরভিসন্ধিমূলক ও ইচ্ছাকৃতভাবে ফেসবুকে অ্যাডিশনাল পিপি কামাল উদ্দীন  স্ট্যাটাস দিয়েছেন। মোছলেম উদ্দিন আহমদ ও মামলার বাদী হুসেইন কবিরকে অপমান, হেয় প্রতিপন্ন ও মানহানি করেছেন। মোছলেম উদ্দিন আহমদের সামাজিক, রাজনৈতিক মানমর্যাদা হেয় প্রতিপন্ন করতে কু-উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।  

বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট মির্জা কচির উদ্দিন আহমেদ বলেন, এমপি মোছলেম উদ্দিন আহমদকে জড়িয়ে ১৫ লাখ টাকার চেক নিয়ে ফেসবুকে মিথ্যা, ভিত্তিহীন মানহানিকর অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে কামালের উদ্দীনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলার আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রোকে প্রতিবেদন দিতে বলেছেন। যদি চেক নিয়ে থাকতো, তাহলে চেকটা ক্যাশ হতো না। ব্যাংকে এই ধরনের লেনদেন হয়নি। 

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

আরও খবর

Video